ভর্তি
ট্রেন্ডিং

একাদশ শ্রেনি ভর্তি আবেদন ২০২৩ । নোটিশ সহ সম্পূর্ণ ভর্তি আবেদন পদ্ধতি ২০২৩

এক নজরে

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২৩ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। যারা এ বছর এসএসসি পরীক্ষা ২০২৩ এ উত্তীর্ণ হয়েছে তারা একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন করতে পারবে। একাদশ শ্রেণিতে যারা বাংলাদেশের সকল সরকারি বা বেসরকারি কলেজে ভর্তি হতে ইচ্ছুক তারা এখানে থেকে একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন ২০২৩ সম্পন্ন করতে পারবেন। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২৩ এর জন্য আবেদন করা যাবে যারা দশম শ্রেণী উত্তীর্ণ হয়েছেন কিংবা এসএসসি অথবা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন । একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির পদ্ধতি কিছুটা জটিল হওয়াতে শিক্ষার্থীরা অনেকে এটি ভালো ভাবে বোঝেনা। কিন্তু একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য একাদশ শ্রেণীর ভর্তি পদ্ধতি ২০২৩ জানা খুবই জরুরী।

একাদশ শ্রেনি ভর্তি পদ্ধতি ২০২৩

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি পদ্ধতি ২০২৩ যদি ভালোভাবে না জানা থাকে তাহলে শিক্ষার্থী তার পছন্দমতো কলেজে আবেদন করতে পারবে না কিংবা আবেদন করা হলেও সেই কলেজে পড়ার জন্য বিবেচিত হবে না। অনেক শিক্ষার্থী ভুল ভাবে আবেদন এর কারনে ভালো ফলাফল থাকা সত্ত্বেও ভালো কলেজে ভর্তি হতে পারে না। আবার অনেকের সবথেকে পছন্দের কলেজে পড়া কিন্তু সেই কলেজে পড়ান সকল যোগ্যতা পূরণ করার পরেও শিক্ষার্থী ভুলভাবে কলেজ ভর্তি আবেদন করার জন্য সেই কলেজে পড়তে পারে না। শিক্ষার্থীরা যাতে এ ধরনের সমস্যায় না পড়ে এবং ভোগান্তির শিকার না হয় সে কারণে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ২০২৩ নিয়ে আজকের এই নিবন্ধ।

এই নিবন্ধ থেকে যা জানতে পারবেন সেগুলো একনজরে এর ডানপাশে ক্লিক করে দেখে নিতে পারেন। যদি সময় স্বল্পতা থাকে সেক্ষেত্রে আপনার প্রয়োজনীয় টপিক পড়ে ফেলুন খুব সহজে একনজরে তে ক্লিক করে। তবে আমাদের পরামর্শ থাকবে যেহেতু একাদশ শ্রেণীর ভর্তি শিক্ষার্থীর কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। তাই শিক্ষার্থীর বাবা-মা কিংবা অভিভাবক অথবা শিক্ষার্থী কিছুটা সময় নিয়ে এই নিবন্ধটি ভালোভাবে পড়বেন। এই নিবন্ধ করে একাদশ শ্রেণির ভর্তির জন্য কি কি পদক্ষেপ নিতে হবে এবং একাদশ শ্রেণির ভর্তির এটুজেড সকল কার্যক্রম বুঝতে পারবেন।

একজন শিক্ষার্থী এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার পরে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত যে সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হয় অর্থাৎ কলেজে প্রথম ক্লাস পর্যন্ত নির্দেশনা দেওয়া আছে এই নিবন্ধে। একাদশ শ্রেণীর ভর্তি বিষয়ে যারা বিভ্রান্তির শিকার কিংবা যারা এখনো একাদশ শ্রেণীর ভর্তি হতে কি কি কাগজপত্র লাগবে বা কিভাবে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন করবেন অথবা কোন কোন কলেজ চয়েজ দিবেন তা এখনো বুঝতে পারছেন না তারা একটু সময় নিয়ে এই নিবন্ধটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন শুরুর তারিখ ২০২৩

যারা সদ্য এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা এখন একটাই প্রশ্ন বারবার করে চলেছেন তাহলো একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন ২০২৩ শুরু কবে থেকে? একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন সাধারণত এসএসসি ফলাফল প্রকাশের এক সপ্তাহের মধ্যেই শুরু হয়ে যায়। অর্থাৎ এসএসসি ফলাফল প্রকাশের পর ছয় থেকে সাত দিন এর মধ্যেই একাদশ শ্রেণির ভর্তির একটি নোটিশ প্রকাশ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে। একাদশ শ্রেণির ভর্তির সেই নোটিশে একাদশ শ্রেণির ভর্তির আবেদন শুরু এবং শেষের তারিখ। ভর্তি আবেদন ফি সহ যাবতীয় তথ্য দেওয়া থাকে।
একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন শুরুর তারিখ:

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদনের নোটিশ ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদনের জন্য নোটিশ প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। যারা ২০২৩ সালে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য আবেদন করতে ইচ্ছুক তারা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এই নোটিশটি ভালোভাবে দেখতে পারবেন এখান থেকে। যেহেতু একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদনের নোটিশে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদনের সকল তথ্য দেওয়া থাকে সে কারণে একজন শিক্ষার্থী অথবা তার অভিভাবকের উচিত অবশ্যই একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদনের নোটিশ ভালোভাবে পড়ে নেওয়া। শিক্ষার্থীর সুবিধার্থে নিচের অংশে শিক্ষা মন্ত্রণালয় হতে প্রকাশিত একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন নোটিশ ২০২৩ সংযুক্ত করা হলো।

[একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন নোটিশ]

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন পদ্ধতি

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন কিছুটা জটিল মনে হতে পারে তবে সময় নিয়ে এই নিবন্ধটি সম্পূর্ণ পড়ুন একাদশ শ্রেণির ভর্তির বিষয়ে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন। সহজভাবে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি সম্পূর্ণ আবেদন পদ্ধতি ভালোভাবে এখানে বর্ণনা করা হয়েছে। একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন শুরু হবে তারিখে। একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন ২০২৩ সম্পূর্ণ অনলাইনে সম্পন্ন হবে। শিক্ষার্থীকে কোন প্রতিষ্ঠানে যেতে হবে না কিংবা বোর্ডে গিয়ে আবেদন করতে হবে না বরং শিক্ষার্থী বাড়িতে বসে অথবা নিকটস্থ কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে খুব সহজে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন ২০২৩ করতে পারবেন। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন এর সুযোগ থাকে তিনবার।

একাদশ শ্রেণি প্রথম পর্যায়ের ভর্তি আবেদন ২০২৩

একাদশ শ্রেণির প্রথম পর্যায়ের ভর্তি আবেদন ২০২৩ শুরু হচ্ছে ___ তারিখে। যারা একাদশ শ্রেণির ভর্তির জন্য আবেদন করতে ইচ্ছুক তারা অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন করবেন এবং প্রথম পর্যায়ে ভর্তি আবেদনের জন্য সময় সূচি পাওয়া যাবে একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন এর জন্য প্রকাশিত নোটিশে। উপরের অংশে একাদশ শ্রেণী ভর্তি আবেদনের নোটিশ ২০২৩ সংযুক্ত করা আছে প্রয়োজনে দেখে নেবেন।

একাদশ শ্রেণি দ্বিতীয় পর্যায়ের ভর্তির আবেদন ২০২৩

প্রথম পর্যায়ের ভর্তির আবেদন শেষ এর কিছুদিনের মধ্যেই দ্বিতীয় পর্যায়ের ভর্তি আবেদন গ্রহণ করা হবে। প্রথম পর্যায়ের ভর্তি আবেদনের ফলাফল প্রদান এর পরেই এই সুযোগ পাবে শিক্ষার্থীরা। যারা প্রথম পর্যায়ে কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হবে তারা সুযোগ পাবে মাইগ্রেশন এর।

একাদশ শ্রেণি তৃতীয় পর্যায়ের ভর্তির আবেদন ২০২৩

একাদশ শ্রেণী প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ভর্তি আবেদন শেষে ফলাফল প্রকাশের পরে সুযোগ দেওয়া হবে তৃতীয় পর্যায়ের ভর্তি আবেদনের জন্য। যারা একাদশ শ্রেণীতে প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ভর্তি আবেদন করেছিলেন তারা যদি কলেজ না পেয়ে থাকেন তাহলে তৃতীয় পর্যায়ে ভর্তি আবেদন করতে পারবেন। তৃতীয় পর্যায়ের ভর্তি আবেদনের পূর্বেই পছন্দক্রম অনুযায়ী মাইগ্রেশন এর ফলাফল প্রকাশিত হবে। একাদশ শ্রেণি তৃতীয় পর্যায়ের ভর্তির আবেদন ২০২৩ এর ফল প্রকাশ করা হয় আবেদনের দুই থেকে তিন দিন পর। অর্থাৎ তৃতীয় পর্যায়ে ভর্তি আবেদনের জন্য সময় থাকে সবচেয়ে কম। একাদশ শ্রেণি তৃতীয় বর্ষের ভর্তির আবেদন ২০২৩ এর মধ্য দিয়ে শেষ হয় একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদন পদ্ধতি।

একাদশ শ্রেণীর ভর্তি আবেদনের নিয়ম ২০২৩

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি আবেদনের নিয়ম ২০২৩। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদনের নোটিশ অনুযায়ী যে তারিখ দেওয়া থাকে সেই তারিখের কোথায় আবেদন করতে হয়। ভর্তি আবেদন করার জন্য শিক্ষার্থী নিজের মোবাইল ফোন কিংবা কম্পিউটার ব্যবহার করতে পারেন। যদি শিক্ষার্থীর কাছে মোবাইল ফোন অথবা কম্পিউটার না থাকে সে ক্ষেত্রে স্থানীয় কোন কম্পিউটার দোকানে গিয়ে আবেদন সম্পন্ন করা যাবে ।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির ফি প্রদান ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য সর্বপ্রথম কার্যক্রম হল ভর্তি ফি প্রদান করা। ভর্তি ফি প্রদান করা যাবে নগদ/সোনালী ব্যাংক/টেলিটক/বিকাশ/শিওর ক্যাশ/রকেট এসকল ব্যাংকিং সেবা গুলোর মাধ্যমে। একাদশ শ্রেণিতে সার্ভিস চার্জ সহ আবেদন ফি ১৫০/- টাকা। যারা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন ফি কত তা জিজ্ঞেস করছিলেন আশা করি তারা তাদের উত্তর পেয়ে গেছেন।
আবেদন ফি প্রদান করার সময় শিক্ষার্থীকে একটি মোবাইল নাম্বার প্রদান করতে হবে যে মোবাইল নাম্বারটি শিক্ষার্থীর নম্বর হিসেবে বিবেচিত হবে। শিক্ষার্থীকে অবশ্যই নিজের অথবা অভিভাবকের নাম্বার কন্টাক্ট নাম্বার হিসেবে দিতে হবে। প্রতিটি যেকোনো প্রয়োজনে শিক্ষার্থী এই কন্ট্যাক্ট নাম্বারটি ব্যবহৃত হবে।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কলেজ চয়েজ পদ্ধতি ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ 10 টি কলেজ আবেদন করতে পারবেন। কলেজে আবেদন করার জন্য অতিরিক্ত কোনো ফি প্রদান করতে হবে না। শিক্ষার্থী যে ১৫০/- টাকা ফি প্রদান করেছে সে ১৫০/- টাকা ফি প্রদান করে পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ 10 টি কলেজে আবেদন করতে পারবে। একই প্রতিষ্ঠান যদি একাধিক শিফট কিংবা গ্রুপ অথবা ভার্শন থাকে সে ক্ষেত্রে একাধিক গ্রুপ/শিফট/ভার্সনে আবেদন করা যাবে।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদনের কলেজের পছন্দক্রম ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদনের জন্য কলেজ পছন্দক্রম ঠিক করা খুবই জরুরী। শিক্ষার্থী যে কলেজে পড়তে ইচ্ছুক সে কলেজ অবশ্যই পছন্দক্রমের শীর্ষে দিবে। পরবর্তীতে অন্যান্য কলেজ গুলো নিচের সিলেক্ট করতে হবে। কলেজ সিলেক্ট করার জন্য কলেজের ইআইআইএন নাম্বার প্রয়োজন হয়। ইন্টারনেটে সার্চ করে খুব সহজেই খুঁজে বের করা সম্ভব কলেজের ইআইআইএন নাম্বার। কলেজের পছন্দক্রম ঠিক করার সময় খেয়াল করতে হবে শিক্ষার্থীর ফলাফলের দিকে। ফলাফল যদি ভালো না হয় সে ক্ষেত্রে সরকারি কলেজগুলো চয়েজ না দেওয়াই ভালো। যেহেতু মেধাক্রমের ভিত্তিতে কলেজ শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত করে সে ক্ষেত্রে যাদের ভাল ফলাফল রয়েছে তারা অগ্রাধিকার পাবে। সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ 10 টি কলেজ চয়েস দিতে পারবে।

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি ফলাফল ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফলাফল ২০২৩ প্রকাশিত হয় তিনটি পর্যায়ে। যেহেতু একাদশ শ্রেণীতে আবেদন করা যায় তিনটি পর্যায় এর মাধ্যমে সে কারণে আলাদা হবে তিনটি পর্যায় এ ফলাফল প্রকাশ করা হয়। ফলাফল প্রকাশিত হয় আবেদন শেষের 15 দিনের মধ্যে। দ্বিতীয় পর্যায়ের ফলাফল প্রকাশিত হয় আবেদন শেষ এর দুইদিন পর। তৃতীয় পর্যায়ের ফলাফল প্রকাশিত হয় আবেদনের শেষ তারিখ 2 দিনের মধ্যে।

একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি নিশ্চায়ন পদ্ধতি ২০২৩

শিক্ষার্থী যে কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছে সেই কলেজ নিশ্চিত করণের যে পদ্ধতি সেই পদ্ধতি হলো একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নিশ্চায়ন ২০২৩। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নিশ্চয়ন করার জন্য শিক্ষার্থীকে অবশ্যই একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নিশ্চায়ন প্রক্রিয়া ২০২৩ সম্পন্ন করতে হবে।
একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নিশ্চায়নের জন্য শিক্ষার্থী প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপে যে কলেজে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হয়েছে সে কলেজে নিশ্চয়ন ফি প্রদান করে কলেজ নিশ্চয়ন করতে পারবেন।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি ২০২৩

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি ২০২৩ ইতিমধ্যে আলোচনা করা হয়েছে। একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আবেদনের জন্য প্রয়োজন হবে একশত পঞ্চাশ টাকা । ১৫০/- টাকা ফি প্রদান করে আবেদন করা যাবে সর্বনিম্ন পাঁচটি এবং সর্বোচ্চ 10 টি কলেজে। কলেজের সংখ্যা কম বা বেশি হলেও আবেদন ফি এর কোনো পরিবর্তন হবে না। পরবর্তীতে কলেজ নিশ্চয়নের সময় নিশ্চয়ন ফি প্রদান করতে হবে।

পরবর্তী আপডেটে যা জানতে পারবেন

  • একাদশ শ্রেণিতে সরকারি কলেজে ভর্তি ফি
  • একাদশ শ্রেণিতে বেসরকারি কলেজে ভর্তি ফি

আরো দেখুনঃ  একাদশ শ্রেণী ভর্তি ফলাফল ২০২৩

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button